স্পোর্টস ডেস্কঃ  বিশ্বজুড়ে করোনা মহামারির করণে ২০২০ সালে অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত হতে পারেনি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। গতবছরের সেই খেলা এ বছর অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিলো ভারতে। তবে করোনার কারণে ভারতের সাম্প্রতিক যে অবস্থা তাতে আগামী অক্টোবর-নভেম্বরেও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজন সম্ভব হবে কি না তা নিয়ে সংশয় রয়েছে।

তবে এমন পরিস্থিতির মধ্যেও ভবিষ্যতে ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণের টুর্নামেন্টটি আয়োজন নিয়ে বিশেষ পরিকল্পনা শুরু করেছে আইসিসি। তবে ভারতের পরিবর্তে ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হতে পারে সংযুক্ত আরব আমিরাতে। এ ছাড়া আগামী বছর অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে হওয়ার কথা ২০২২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। এর মধ্যেই ২০২৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে পরিকল্পনা শুরু করে দিল আইসিসি।

এর আগে বিশ্বকাপ দল সংখ্যায় পরিবর্তন এনেছে আইসিসি। কখনও টিম কমিয়েছে তো, কখনও আবার বাড়িয়েছে। ২০২৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দল ফের বাড়াতে চলেছে সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থা। দলে বেড়ে হতে পারে ২০। তবে তার আগে ২০২১ এবং ২০২২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অংশ নেবে ১৬টি দল। আইসিসি ২০২১ সালের তুলনায় আরও চারটি দলকে ঐ টুর্নামেন্টে যুক্ত করার কথা ভাবছে আইসিসি। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে এই পদক্ষেপ বলে মনে করছেন অনেকেই।

তবে ৫০ ওভারের অর্থাৎ ওয়ানডে বিশ্বকাপ অবশ্য অন্য নীতি নিয়েছে আইসিসি। দলের সংখ্যা কমিয়ে ১৪ থেকে ১০-এ নিয়ে আসা হয়েছে। যদিও ফের শোনা যাচ্ছে, ১০ দলের পরিবর্তে ফের ১৪ দলের টুর্নামেন্ট করার কথা ভাবছে আইসিসি। ২০০৭ সালে ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জে ওয়ানডে বিশ্বকাপ হয়েছিল ১৬ দলের। কিন্তু ২০১১ বিশ্বকাপে তা কমিয়ে করা হয়েছিল ১৪। ২০১৫ বিশ্বকাপেও ১৪টি দল খেললেও ২০১৯ সালে অর্থাৎ শেষ বিশ্বকাপে ১০টি দল খেলে।