newsup

ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২১

গালের চর্বি কমানোর যে ৫ ব্যায়ামে

গালের চর্বি কমানোর যে ৫ ব্যায়ামে

নিউজ ডেস্কঃ গাল অতিরিক্ত ফোলা হয়ে থাকে চর্বির উপস্থিতির কারনে। মুখ দেখতে মনেহয় একদম গোল। পাশাপাশি বিশাল এবং বয়স্কদের মত দেখায়। মুখ সুন্দর লাগে গাল একটু বসা হলে। নারীদের সব থেকে বেশি পছন্দের হলো লম্বা মুখ আর সেটা তখনই সম্ভব যখন গাল গোলগাল না হয়ে একটু চাঁপা হবে।

ঘরে বসে খুব সহজ কিছু ব্যায়াম করলে গোলগাল গাল থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে মাত্র দশ দিনে। চলুন তাহলে জেনে নেই ব্যায়াম গুলো সম্পর্কে।

– বেলুন ফুলানো সব থেকে বেশি উপকারি গালের চর্বি কমানোর জন্য। বেলুন মুখ দিয়ে ফোলানর সময় গালে চাপ পরে। প্রতিদিন অন্তত ১০টি করে বেলুন ফোলাতে হবে। শুধু মাত্র ৫ দিনেই পার্থক্য দেখতে পাওয়া যাবে।

– গরম তাওয়ালের ব্যাবহার করলে গালের চর্বি কমে। এটা শুনতে অনেক আজব লাগলেও এ উপায় অনেক কার্যকরী। গরম তাপের কারনে গালে এক প্রকারের ষ্টীম তৈরি হয়। এই কাজের জন্য প্রথমে পানি ফুটিয়ে নিতে হবে। অল্প একটু ঠাণ্ডা করতে হবে। এবারে পানিতে তাওয়ালে ভিজিয়ে নিয়ে তা থেকে পানি একদম চিপে বের করে দিতে হবে। ত্বকের যে জায়গা গুলোতে চর্বি আছে সে জায়গা গুলোতে তাওয়ালে টি বসাতে হবে। ৫ মিনিট এভাবেই করতে হবে। রাতে ঘুমানোর আগে এ কাজ করতে হবে।

– চুয়িং গাম ত্বকের ব্যায়ামের সব থেকে ভালো একটি উপায়। এ ব্যায়ামটি সব থেকে বেশি ক্যালোরি বার্ন করতে পারে। সুগার-ফ্রি চুয়িং গাম কম্পক্ষে ২০ মিনিট সময় নিয়ে চিবাতে হবে। দুপুরের খাবার এবং রাতের খাবার খাওয়ার পরে কমপক্ষে ৩০ মিনিট চুয়িং গাম চিবাতে হবে।

– ত্বকের মাসাজ গালের চর্বি কমাতে ব্যাপক ভাবে কার্যকর। নিয়ম মত জিনসেং তেল অথবা ভুট্টার তেল দিয়ে ত্বক মাসাজ করলে ত্বকের রক্ত সঞ্চালন সচল হয়, রস লাগতে দেয়না যার ফলে চর্বি জমার প্রবণতা কমে যায়। হাতের তালুতে অল্প তেল নিয়ে তা মুখে নিচের দিক থেকে উপরের কমপক্ষে ৫ বার দিকে মাসাজ করতে হবে। এবারে কমপক্ষে ১০ বার ঠোঁটের পাশে, কানের পাশে ধীরে ধীরে চাপ দিতে হবে। অতঃপর বৃদ্ধ আঙ্গুলের সাহায্যে ৫ থেকে ৬ বার গালের নিচ থেকে চেপে চেপে উপরের দিকে যেতে হবে।

– গার্গল অনুশীলনটি হয়তো সব থেকে সহজ একটি ব্যায়াম। আদৌ ব্যায়ামের মাঝে এই উপায় অন্তর্ভুক্ত কিনা সেটা নিয়ে ব্যাপক দ্বিধা-দ্বন্দ্ব রয়েছে। গালের চর্বি কমাতে কুসুম গরম পানি দিয়ে দিনে অন্তত ৩ থেকে ৪ বার গার্গল করতে হবে। এই ব্যায়ামটির ক্ষেত্রে কোনো নিয়ম নেই, যে কোনো সময় যে কোনো জায়গাতেই এই কাজ করা সম্ভব। তবে রাতে ঘুমানোর আগে এ সকল ব্যায়াম করলে খুব তারাতারি আশানুরূপ ফলাফল পাওয়া যাবে।


সর্বশেষ সংবাদ

এ শুধু খেলার দিন

এ শুধু খেলার দিন

স্পোর্টস ডেস্কঃ আজ সুপার সানডে। জ্যোতিষশাস্ত্রে চাঁদ-সূর্যের আজ কাছাকাছি আসার উল্লেখ নেই, ক্যালেন্ডারেও বিশেষ কিছু লেখা নেই- শুধুই ‘সানডে’। কিন্তু

প্রেমিককে পেতে হলে আগে গাছকে বিয়ে করতে হবে নয়নতারাকে

প্রেমিককে পেতে হলে আগে গাছকে বিয়ে করতে হবে নয়নতারাকে

বিনোদন ডেস্কঃ ভিগনেশের সঙ্গে অনেক দিন ধরেই প্রেম করছেন দক্ষিণী সুন্দরী নায়িকা নয়নতারা। সম্প্রতি স্বীকার করেছেন, তাদের বাগদান হয়ে গেছে।

শরীরের তাপমাত্রা মাপবে এয়ারপডস, পর্যবেক্ষণ করবে ভঙ্গি

শরীরের তাপমাত্রা মাপবে এয়ারপডস, পর্যবেক্ষণ করবে ভঙ্গি

আইটি ডেস্কঃ ওয়াচের পর এবার এয়ারপডগুলিতে শ্রবণশক্তি, শরীরের তাপমাত্রা এবং ভঙ্গি পর্যবেক্ষণের মতো স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সরঞ্জাম রাখার চেষ্টা করছে বহুজাতিক

মাদ্রিদে বাংলাদেশী কোম্পানীর ভ্রাতৃ সমাবেশ

মাদ্রিদে বাংলাদেশী কোম্পানীর ভ্রাতৃ সমাবেশ

কবির আল মাহমুদ, স্পেন : স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদে বাংলাদেশিদের অন্যতম বৃহৎ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ঢাকা ফ্রুতাস কোম্পানী লিমিটেড। প্রায় তিন শতাধিক

স্বপ্নের শহর প্যারিস

স্বপ্নের শহর প্যারিস

নিউজ ডেস্কঃ শিল্প-সাহিত্য ও ঐতিহ্যে নগরী হিসেবে খ্যাত ফ্রান্স তার প্রাচীন নিদর্শন ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপার লীলাভূমিসহ নিজস্ব স্বকীয় বৈশিষ্ট্য

টরোন্টোতে ২৫০ বছরের প্রাচীন ওক গাছসহ বাড়িটি বিক্রির নির্দেশ আদালতের

টরোন্টোতে ২৫০ বছরের প্রাচীন ওক গাছসহ বাড়িটি বিক্রির নির্দেশ আদালতের

নিউজ ডেস্কঃ টরন্টোতে ২৫০ বছরের পুরানো একটি ওক গাছসহ সম্পত্তি সিটি করপোরেশনের কাছে বিক্রির পক্ষে রায় দিয়েছেন অন্টারিওর একটি আদালত।

বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে নিউইয়র্কের সমাবেশে ৫ দফা

বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে নিউইয়র্কের সমাবেশে ৫ দফা

নিউজ ডেস্কঃ বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে নিউইয়র্কে এক প্রতিবাদ সমাবেশে ৫ দফা দাবি উত্থাপন করা হয়েছে বাংলাদেশ সরকারের কাছে। রুখে দাঁড়াও

দেশের মানুষের নিরাপত্তা দিতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ সরকার: ফখরুল

দেশের মানুষের নিরাপত্তা দিতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ সরকার: ফখরুল

নিউজ ডেস্কঃ বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সরকার দেশের মানুষের নিরাপত্তা দিতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। ভোটের অধিকার ও