editor

এপ্রিল ৩০, ২০২০

করোনা সংক্রমণ রোধে স্পেন সরকারের চার ধাপের পরিকল্পনা ঘোষণা

করোনা সংক্রমণ রোধে স্পেন সরকারের চার ধাপের পরিকল্পনা ঘোষণা

স্পেনে প্রাণঘাতী করোনায় (কোভিড-১৯) এ মৃতের সংখ্যা যেমন কমেছে, নতুন আক্রান্তের সংখ্যাও স্বস্তিজনক হারে কমেছে। পরিস্থিতি বিবেচনা করে  করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবেলা ও দেশটির নাগরিকদের স্বাভাবিক জীবনযাত্রায় ফিরিয়ে আনতে সরকার ৪ ধাপের পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে।

 

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) বিকালে সরকারের পরিকল্পনা জানাতে স্পেনের প্রধানমন্ত্রী পেদ্র সানচেজ সংবাদ সম্মেলনে সে ৪টি ধাপের বর্ণনা দেন। ৪ মে থেকে ধাপগুলোর প্রয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হবে এবং জুন মাসের শেষে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আসতে পারে বলে সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী আশা ব্যক্ত করেন। স্পেনকে ‘নতুন স্বাভাবিক অবস্থা’য় ফিরিয়ে নেয়ার ৪ ধাপের পরিকল্পনা মঙ্গলবার মন্ত্রীপরিষদ বৈঠকে অনুমোদিত হয়।

 

 

 

কখনো দ্রুতগতি বা কখনো মন্থর হলেও করোনা মহামারিতে মৃতের সংখ্যা স্পেনে ক্রমান্ময়ে কমে আসছে।মৃতের হার কমে আসার পর্যায়টাকে ২ ধাপে ভাগ করলে, প্রথম ধাপ ছিলো, ১৯ এপ্রিল থেকে ২৩ এপ্রিল পর্যন্ত। এ সময় মৃতের সংখ্যা সর্বোচ্চ ৪৪০জন থেকে সর্বনিম্ন ৩৯৯জন পর্যন্ত উঠানামা করেছে।

আর দ্বিতীয় ধাপ, ২৪ এপ্রিল থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত। এ সময় মৃতের সংখ্যা সর্বোচ্চ ৩৭৮ থেকে সর্বনিম্ন ২৮৮ জনে ওঠানামা করছে।

 

স্পেনের করোনা পরিস্থিতি বর্তমানে যে অবস্থার ভেতরে যাচ্ছে সেই বিচারে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার প্রক্রিয়া শুরু হবে ৪ মে থেকে এবং ‘নতুন স্বাভাবিক অবস্থা’ ফিরে আসতে পারে জুন মাসের শেষে। তবে ‘নতুন স্বাভাবিক’ অবস্থায় পরিস্থিতি বিচারে জীবনযাত্রার অনেক কিছুতে আইনগত পরিবর্তন আনা হতে পারে।

 

প্রধানমন্ত্রী পেদ্র সানচেজ সংবাদ সম্মেলনে জানান, দীর্ঘ প্রায় এক মাস ধরে ৪ ধাপের পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করা হয়েছে। করোনাভাইরাস মোকাবেলায় অন্য দেশের কার্যক্রম বিবেচনায় এনে স্পেনের বৈচিত্র ও বাস্তবতাকে কাজে লাগিয়ে এ পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। স্প্যানিশ নাগরিকদের স্বাস্থ্য ও জীবন রক্ষা করাই এ পরিকল্পনার মূল উদ্দেশ্য বলে জানান প্রধানমন্ত্রী।

 

‘নতুন স্বাভাবিক অবস্থা’র কথা ব্যখ্যা করতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী পেদ্র সানচেজ জানান, ৪ মে থেকে স্পেনের দ্বীপ অঞ্চলগুলো কিছুটা স্বাভাবিক অবস্থায় আনা হবে, তারপর ১১ মে থেকে স্বাভাবিক অবস্থায় আনা হবে কিছু প্রদেশ। এরপর পর্যায়ক্রমে জুনের শেষের দিকে পুরো দেশ নতুন স্বাভাবিক অবস্থা  ফিরে আসতে পারে।

 

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘নতুন স্বাভাবিক অবস্থা’য়ও আমাদের জীবনযাত্রা পরিবর্তিত হবে। যেমন- আমাদের বের হবার সময় মাস্ক পরে নিতে হবে, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। আগে যেমন বন্ধুদের সাথে বের হতাম আমরা, এখন বের হতে হবে একা বা যাদের সাথে ঘরে বসবাস করি তাদের সাথে।


সর্বশেষ সংবাদ

‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব আবৃত্তি পদক প্রদান’ করবেন প্রধানমন্ত্রী

‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব আবৃত্তি পদক প্রদান’ করবেন প্রধানমন্ত্রী

নিউজ ডেস্কঃ বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষকে সামনে রেখে শুরু হচ্ছে বঙ্গবন্ধু জাতীয় আবৃত্তি উৎসব। এ উৎসবে প্রথমবারের মতো ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব আবৃত্তি পদক

ধূমপান ছেড়ে দিলে কি ওজন বাড়ে

ধূমপান ছেড়ে দিলে কি ওজন বাড়ে

নিউজ ডেস্কঃ ধূমপান শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্য উভয়কেই ক্ষতিগ্রস্ত করে। ধূমপানের ফলে ক্যান্সার, হৃদরোগ, স্ট্রোক, ফুসফুসের রোগ এবং ডায়াবেটিসের মত

আগামী দুই সপ্তাহ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

আগামী দুই সপ্তাহ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

নিউজ ডেস্কঃ আগামী দুই সপ্তাহ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। আজ শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১১টার

ভারতে একদিনে সাড়ে তিন লাখ সংক্রমণ

ভারতে একদিনে সাড়ে তিন লাখ সংক্রমণ

নিউজ ডেস্কঃ করোনাভাইরাসের তৃতীয় ঢেউয়ে টালমাটাল ভারত। দেশটিতে হু হু করে বাড়ছে সংক্রমিত রোগী। দৈনিক শনাক্তে হচ্ছে নতুন রেকর্ড। হিন্দুস্তান

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নুসরাত জাহান যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম মুসলিম নারী ফেডারেল বিচারক মনোনীত

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নুসরাত জাহান যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম মুসলিম নারী ফেডারেল বিচারক মনোনীত

নিউজ ডেস্কঃ যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে এই প্রথম বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত একজন মুসলিম-আমেরিকান নারীকে ফেডারেল বিচারক হিসেবে মনোনীত করছেন। তার নাম নুসরাত চৌধুরী।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেনকে মার্কিন প্রেসিডেন্টের শুভেচ্ছা

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেনকে মার্কিন প্রেসিডেন্টের শুভেচ্ছা

নিউজ ডেস্কঃ বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন এবং তাঁর পত্নীকে ইংরেজি নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও

সন্তান স্কুল কলেজে পাঠাতে শঙ্কায় অভিভাবকরা

সন্তান স্কুল কলেজে পাঠাতে শঙ্কায় অভিভাবকরা

নিউজ ডেস্কঃ করোনাভাইরাসে সংক্রমণ অনেকটাই লাফিয়ে বাড়ছে। ৩ জানুয়ারি যেখানে সন্দেহজনক রোগীর মধ্যে আক্রান্ত ছিল ৩ শতাংশ, সেখানে বৃহস্পতিবার এই হার

ডকুমেন্ট স্ক্যান করুন স্মার্টফোনে

ডকুমেন্ট স্ক্যান করুন স্মার্টফোনে

নিউজ ডেস্কঃ খুব বেশিদিন আগের কথা নয় যখন প্রয়োজনীয় কাগজপত্র থেকে শুরু করে ছবি, স্বাক্ষর প্রভৃতি স্ক্যান করার জন্য আমাদের