editor

অক্টোবর ২১, ২০১৯

যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশীদের জন্য স্কলারশিপ ও সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধির অনুরোধ স্পিকার ড. শিরীনের

যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশীদের জন্য স্কলারশিপ ও সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধির অনুরোধ স্পিকার ড. শিরীনের

 

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি বলেছেন, বাংলাদেশের রয়েছে হাজার বছরের সমৃদ্ধ সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য। বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা যুক্তরাষ্ট্রে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখছেন। নিউইয়র্কে অবস্থানরত প্রবাসী বাংলাদেশীরা সে দেশের শিক্ষা ও সংস্কৃতিতে অবদান রাখার পাশাপাশি অর্থনৈতিক উন্নয়নে ভূমিকা রেখে চলেছেন। এ সময় তিনি যুক্তরাষ্ট্রের সাথে বাংলাদেশের শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক বিনিময়ের ওপর গুরুত্বারোপ করেন এবং যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার জন্য বিভিন্ন স্কলারশিপ ও সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধির অনুরোধ জানান।

 

সংসদ ভবনে আজ বাংলাদেশ সফররত যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্য সিনেটর একটি প্রতিনিধি দল স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে তিনি এই অনুরোধ জানান। সিনেটর লুইস সেপুলভেদা’র নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলে ছিলেন সিনেটর জন ল্যু, জেমস স্কুফিস, লিরয় কমরি, কেভিন এ পার্কার। এসময় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আমন্ত্রণে সিনেটরদের প্রতিনিধি দলটি বাংলাদেশ সফর করছেন।

 

সিনেটর লুইস সেপুলভেদা বলেন, বাংলাদেশিরা নিউইয়র্ক সিটিতে বড় অবদান রেখে চলেছেন। দীর্ঘদিন যাবত এই প্রতিনিধিদলের সদস্যরা নিউইয়র্কে বসবাসরত বাংলাদেশ সম্প্রদায়ের হয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। এ কার্যক্রম আরও কার্যকর ও গঠনমূলক পদ্ধতিতে অব্যাহত রাখতে বাংলাদেশ সম্পর্কে জানতে তারা এ সফরে এসেছেন। এ সময় প্রতিনিধি দল বাংলাদেশের সাথে শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিনিময় ও বাংলাদেশী কমিউনিটির জন্য তৈরি পোশাক ও খাদ্যপণ্য আমদানির আগ্রহ প্রকাশ করেন।

 

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এসময় বাংলাদেশের উন্নয়নের বিবরণ দিয়ে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ ইতোমধ্যে স্বল্পোন্নত দেশের থেকে বেরিয়ে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে প্রবেশ করেছে। বাংলাদেশ নারীর ক্ষমতায়নে বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। সরকার নারীদের ক্ষমতায়নে যুগোপযোগী নীতিমালা প্রণয়ন এবং বাস্তবায়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ফলে দারিদ্রের হার ২১শতাংশে নেমে এসেছে।

 

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশে এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ রাষ্ট্রে পরিণত হবে। তিনি বাংলাদেশে নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ, মেট্রোরেল নির্মাণ, কর্ণফুলী ট্যানেল, এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণ, ১০০ ইকোনমিক জোন স্থাপন, বিদ্যুৎ উৎপাদন ২১ হাজার মেগাওয়াটে উন্নীতকরণসহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন।  বাংলাদেশ প্রতিদিন


সর্বশেষ সংবাদ

রোনাল্ডোকে ‘উচিত জবাব’ দিলেন মেসির বাবা

রোনাল্ডোকে ‘উচিত জবাব’ দিলেন মেসির বাবা

স্পোর্টস ডেস্কঃ ব্যালন ডি’অর জিতে যেন স্বস্তিতে নেই লিওনেল মেসি। সমালোচনার ঝড় সইতে হচ্ছে তাকে। মেসির এই পুরস্কার জেতাকে কেলেঙ্কারি বলতেও

লন্ডনে এমসি ও সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীদের পূনর্মিলনী

লন্ডনে এমসি ও সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীদের পূনর্মিলনী

নিউজ ডেস্কঃ বিপুল উৎসাহ ও উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে গত ২৯ নভেম্বর লন্ডনের রয়েল রিজেন্সি হলে অনুষ্ঠিত হয় এমসি কলেজ ও সরকারী

ওমিক্রনের বিরুদ্ধে ‘কার্যকর’ ওষুধের অনুমোদন দিল যুক্তরাজ্য

ওমিক্রনের বিরুদ্ধে ‘কার্যকর’ ওষুধের অনুমোদন দিল যুক্তরাজ্য

নিউজ ডেস্কঃ ওমিক্রনের চিকিৎসায় গ্ল্যাক্সোস্মিথক্লাইনের মুখে খাওয়ার ওষুধ বৃহস্পতিবার অনুমোদন দিয়েছে যুক্তরাজ্য। বার্তা সংস্থা এএফপি এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে। ব্রিটিশ

আন্তর্জাতিক ইনকামিং কলের দাম কমল

আন্তর্জাতিক ইনকামিং কলের দাম কমল

নিউজ ডেস্কঃ বিদেশ থেকে আসা কলের খরচ কমল। ইনকামিং কলরেট ০.০০৬ ডলার (০.৫ সেন্ট) থেকে কমিয়ে ০.০০৪ ডলার (০.৫ সেন্ট) করা

সমস্যা বাম পায়ে, চিকিৎসক কাটলেন ডান পা

সমস্যা বাম পায়ে, চিকিৎসক কাটলেন ডান পা

নিউজ ডেস্কঃ বাম পায়ে সংক্রমণ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন এক বৃদ্ধ। পরিস্থিতি বিবেচনা করে সংক্রমিত পা অপসারণের সিদ্ধান্ত নেন চিকিৎসকরা। কিন্তু

করোনায় বিশ্বে মৃত্যু কমলেও বেড়েছে সংক্রমণ

করোনায় বিশ্বে মৃত্যু কমলেও বেড়েছে সংক্রমণ

নিউজ ডেস্কঃ চলমান করোনা মহামারিতে বিশ্বজুড়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৭ হাজার ৪২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় রোগী শনাক্ত হয়েছে

আফ্রিকার ৭ দেশ থেকে এলে কোয়ারেন্টিন

আফ্রিকার ৭ দেশ থেকে এলে কোয়ারেন্টিন

নিউজ ডেস্কঃ করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রণের বিস্তার ঠেকাতে আফ্রিকার ৭টি দেশ থেকে বাংলাদেশে এলে ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। বৃহস্পতিবার

আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস আজ

আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস আজ

নিউজ ডেস্কঃ আজ আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস। বিশ্ব জুড়ে শারীরিক ও মানসিক প্রতিবন্ধিতার শিকার মানুষের জীবনমান উন্নয়ন ও সুরক্ষার অঙ্গীকার নিয়ে উদযাপন