সাকিবকে ফাঁসানো সেই আগারওয়াল দুই বছর নিষিদ্ধ

ক্রীড়া ডেস্ক ::জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করায় গত অক্টোবরে ক্রিকেটে নিষিদ্ধ হয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেটে দলের সাবেক অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। বাংলাদেশের বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডারকে ফাঁসিয়ে দেন দীপক আগারওয়াল নামের জুয়াড়ি। এবার এই জুয়াড়িকেই নিষিদ্ধ করেছে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)।

 

কয়েক দফায় সাকিবকে লোভনীয় প্রস্তাব দিয়েছিলেন ওই জুয়াড়ি। এ প্রস্তাব গোপন রাখায় আইসিসির দৃষ্টিতে অপরাধী হয়েছেন বাংলাদেশের সেরা ক্রিকেটার। সেই দীপক আগারওয়ালকে দুই বছরের জন্য সব ধরনের ক্রিকেটে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি।

 

আজ বুধবার এক বিবৃতিতে আইসিসি বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। আইসিসির দুর্নীতি দমন বিভাগের আনীত অভিযোগে শাস্তি দেওয়া হয়েছে আগারওয়ালকে। ২০১৮ সালে টি-১০ ক্রিকেট লিগে সিন্ধির ফ্রাঞ্চাইজির একজন মালিক ছিলেন আগারওয়ালও।

 

আইসিসির দুর্নীতি দমন বিভাগের তদন্তে অসহযোগিতার অভিযোগ উঠে তার বিরুদ্ধে। এর পরিপ্রেক্ষিতেই আনুষ্ঠানিকভাবে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে। আগামী ২০২১ সালের ২৭ অক্টোবর নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হবে তার।

 

এক বিবৃতিতে আইসিসির জেনারেল ম্যানেজার অ্যালেক্স মার্শাল জানান, আইসিসির দুর্নীতি দমন বিভাগের তদন্তে বাধা ও দেরি করানোর অনেক উদহারণ আছে আগারওয়ালের বিরুদ্ধে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *