বাংলাদেশি দর্শক কেন দেখবেন ‘এক্সট্র্যাকশন’

স্যাম হারগ্রেভ পরিচালিত অ্যাকশন-সমৃদ্ধ ‘এক্সট্র্যাকশন’-এর স্ট্রিমিং শুক্রবার নেটফ্লিক্সে শুরু হয়েছে। গত বছর যখন ‘থর’-অভিনেতা ক্রিস হেমসওয়ার্থ মুম্বাইয়ে পা রাখেন শুটিং করতে, সেই সময় থেকেই এই ছবি নিয়ে উদ্দীপনার শুরু। এই ছবিতে রয়েছেন বলিউডের বিখ্যাত অভিনেতা রণদীপ হুদা এবং পঙ্কজ ত্রিপাঠী।

 

এই ছবির গল্পে রয়েছে বাংলাদেশের রেফারেন্স, এবং এতে বাংলা ভাষারও ব্যবহার রয়েছে। ‘এক্সট্র্যাকশন’ ছবিতে একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে রয়েছেন শতাফ ফিগার। বাংলা ছবির এই জনপ্রিয় অভিনেতা বহুদিন ধরেই জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক স্তরে কাজ করছেন। এই নেটফ্লিক্স অরিজিনালে শতাফকে দেখা গিয়েছে একজন সেনা অফিসারের পোশাকে।

 

ভারত ও বাংলাদেশ দুই দেশের দুই গ্যাং লর্ডের প্রতিদ্বন্দ্বিতা ও একটি কিডন্যাপ দিয়ে গল্প শুরু। অপহৃত এক কিশোরকে উদ্ধার করতেই বাংলাদেশে পা রাখবে ক্রিস হেমসওয়ার্থ অভিনীত চরিত্রটি এবং তার পরে ঘটনা গড়াবে অন্য দিকে। অ্যাকশন-সমৃদ্ধ এই ছবির গল্পটি বাংলাদেশকে নিয়ে। শুটিং হয়েছে বাংলাদেশসহ থাইল্যান্ড ও ভারতে।

 

চিত্রনাট্যকার জো রুশো ছবির গল্পটি লিখেছিলেন প্যারাগুয়ের প্রেক্ষাপটে প্রায় এক দশক আগে। কিন্তু নেটফ্লিক্স এখন উপমহাদেশ কেন্দ্রিক কনটেন্ট তৈরিতে আগ্রহী হওয়ায় গল্পের প্রেক্ষাপট বদলে দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *