সেপ্টেম্বরেই জাতীয় দলের হয়ে মাঠে নামবেন মেসি-নেইমাররা

 

ক্লাব ফুটবলের ব্যস্ত সূচির মাঝেও গত মাসের শেষ সপ্তাহে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচ হওয়ার কথা ছিল। লাতিন অঞ্চলের বাছাইপর্বের ম্যাচে মাঠে নামার কথা ছিল লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা ও নেইমারের ব্রাজিলের। তবে করোনাভাইরসের প্রাদুর্ভাবে বন্ধ হয়ে যায় সব ধরনের খেলাধুলা। স্থগিত করা হয় প্রথম দুই রাউন্ডের খেলা।

 

করোনাভাইরাসের ফলে সৃষ্ট ভ্রমণ জটিলতার কারণে চলতি বছর কোনো আন্তর্জাতিক খেলা নাও হতে পারে বলে সম্প্রতি সংশয় প্রকাশ করেছিলেন ফিফা সহ-সভাপতি ও কনকাকাফ অঞ্চলের প্রধান ভিক্টর মন্টাগিলানি। এর সাথে একমত জানিয়েছিল ফিফাও। তবে ব্যতিক্রম ভাবনা কনমেবলের। তারা সেপ্টেম্বরেই শুরু করতে চাইছে লাতিন অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচ। আগের নিয়মে হোম ও অ্যাওয়ে ম্যাচের ভিত্তিতে অনুষ্ঠিত হবে বাছাইপর্ব।

 

সব ফেডারেশনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে শুক্রবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠকের পর এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছে মহাদেশটির শীর্ষ ফুটবল সংস্থা কনমেবল। নির্দিষ্ট তারিখ উল্লেখ না করলেও সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে লিওনেল মেসি, নেইমারদের খেলা মাঠে গড়াবে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি।

 

এদিকে বৈঠকে কোপা আমেরিকা নিয়েও আলোচনা করে সংস্থাটি। আর্জেন্টিনা ও কলম্বিয়ায় ১২ দলের অংশগ্রহণে এই বছরের জুন-জুলাইয়ে হওয়ার কথা ছিল লাতিন আমেরিকা ফুটবলের সর্বোচ্চ এই টুর্নামেন্ট। করোনাভাইরাসের কারণে কোপা আমেরিকা ২০২০ আসর স্থগিত করে দেয় তারা। এবারের আসর আগামী বছরের জুন-জুলাইয়ে শুরুর বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

 

তবে স্থগিত হয়ে যাওয়া কোপা লিবের্তাদোরেস ও কোপা সুদামেরিকানার মতো মহাদেশীয় ক্লাব টুর্নামেন্ট পুনরায় শুরুর বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *