মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১১:২৫ অপরাহ্ন

মামুন জামিলের এক গুচ্ছ ছড়া

মামুন জামিলের এক গুচ্ছ ছড়া

অতীতই হোক বসত বাড়ি
________________________

অতীত যদি স্বর্ণ হবে
তবে কেন স্বপ্নে বিভোর
ভবিষ্যতের বিনির্মাণে
ক্লান্ত দেহ,সকাল দুপর ?

দেইনা ফাঁকি একটি ক্ষণও
সুখপাখিটার স্বপ্ন দেখা,
‘নষ্টালজিক’ অতীত এসে
মুহুর্তে মন বানায় একা !

বর্তমানের কষাঘাতে
তালমেলাতে ছন্দে হারি,
ভবিষ্যত আর হয়না গড়া
অতীতই হোক বসত বাড়ি !!
———-

কুকুর হইতে সাবধান
___________________

আমি তো ভাই পাগল মানুষ
পাগলামিতে দিন কাটাই,
মূল্যবিহীন কথা আমার
আমার কথা ধরতে নাই !

তোমরা যারা বলছো কথা
কথার পিঠে যুক্তি দাও
যুক্তি দিয়েই প্রমাণ কর
ভাত খাবে না,পোলাও খাও!

আমার কিন্তু ভাতেই রুচি
অরুচি সব মাখন-ঘি,
তোমরা বলো এসব হজম
‘কুত্তা’র পেটে হয় নাকি?

কুকুর কিন্তু গন্ধ শুঁকে
চোর সাধু কে ? মালুম পায়
সাবধানে তাই সামনে এসো
কুকুর যদি পেছন ধায় ??
——————-

চৈতন্যের দৃশ্যাবলী
_________________
যদি কিছু মুখে বলি মন্ত্রে
যন্ত্রের মতো করে শব্দ,
কর্কশ পদাবলী অন্ত্রে
খেলে যায় চিতমরা অব্দ !!

কাঁটাহীন গোলাপের বোঁটাতে
মৌ-পোকা যায় নাকি খুঁজতে ,
মধুছাড়া পরাগের ফোটাতে
সঙ্গম হলো কিনা বুঝতে ?

চাতকীর আশা ছিলো বৃষ্টি
কালো মেঘ দেখে করে শীৎকার,
স্নান ঘরে ডুবো জলে কৃষ্টি
তৃষ্ণায় দেয় বুনো চিৎকার !

পাহাড়ের চুড়া দেখে ধৈর্য্
আকাশের মৌণতা স্পর্শে,
চন্দ্রের আরশীতে সূর্য
ফেলে কোটি আলোকণা বর্ষে !
________________
একটুখানি পেছন ফেরো
__________________
ত্রস্ত পায়ে কন্যা তুমি কোন সুদূরে যাও?
অবহেলায় নুপুর জোড়ার কষ্ট কি টের পাও?
রুক্ষ কেশের সূক্ষ্ম দোলা, লজ্জাবতী ঢঙ
আঁচলবিহীন কন্যা তোমায় লাগছে দেখে সঙ!
কোথায় তোমার মায়াকাড়া কাজলকালো চোখ?
চিরন্তন সেই নারীর শোভা লজ্জামাখা মুখ?
একটুখানি পেছন ফেরো পেরিয়ে এলে যা-
শান্তনদী ,উদার আকাশ ,সবুজশ্যামল গাঁ !
নিসর্গটাই ছিল তোমার আত্মপরিচয়
‘আধুনিকা’র নষ্ট ধোঁয়ায় করছো কেন ক্ষয় ?
__________
কাল্লু কসাই ছাত্র হবে
____________________
কাল্লু কসাই উদাস চোখে দূরে তাকায়, চিন্তা করে–
পেশায় কি তাঁর গলদ কোথাও,মন কেনো আজ নিন্দা করে?
ওরা নাকি ছাত্র ছিলো “ক্যাডার’ না হয় দলের নেতা,
মানুষ কাটায় হাত কাঁপেনি, মন থাকলে মর্মব্যথা !
কপাল জুড়ে উঠলো ফুটে ভয় মাখানো বক্ররেখা,
এমন করে মানুষ কাটা চামড়া চোখে হয়নি দেখা !
হালাল উপায় জবাই করা ছাগল গরুর মাংস কাটে,
এখন কেন হাত দিতে তাঁর ঘেন্না লাগে ছুরির বাটে ?
তাই বলে কি বাপের পেশা এমন করে পড়েই রবে ?
মানুষ কাটার ‘ট্রেনিং’ নিতে কাল্লু কি আজ ছাত্র হবে ?

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ADVERTISEMENT




© All rights reserved © 2020 globalview24.Com
Design BY positiveitusa.com
ThemesBazar-Jowfhowo